Â

রাজ্যে শিক্ষকতা পেশার সাথে যুক্ত ব্যক্তিদের ছুটি নিয়ে নতুন নিয়ম জারি করলো পর্ষদ।

পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষকতা পেশার সাথে যুক্ত ব্যক্তিদের ছুটি নেওয়ার নিয়ম সম্পর্কে বিরাট গুরুত্বপূর্ণ আপডেট এইমাত্র উঠে এলো রাজ্য সরকারের তরফে। স্কুল শিক্ষিকাদের ছুটি বিষয়ে নতুন ঘোষণা নোটিশ দিয়ে জারি করলো পশ্চিমবঙ্গ মধ্য শিক্ষা পর্ষদ। কি জানানো হয়েছে এই নতুন নির্দেশিকায় বিস্তারিত জানতে নিচের সম্পূর্ণ প্রতিবেদন শেষ পর্যন্ত ভালোভাবে পড়ুন।

স্কুল শিক্ষিকাদেরর সাধারণ ছুটি ছাড়াও ক্যাজুয়াল লিভ, মাতৃত্বকালীন ছুটি ও বিশেষ ছুটি নেওয়ার বেশ কিছু নিয়ম রয়েছে। যেহেতু শিক্ষকতা পেশার সাথে যুক্ত ব্যক্তিদের জন্য আর্ন লিভ এখনো চালু হয়নি, তাই এইসব নিয়মাবলি শিক্ষকতা পেশার সাথে যুক্ত সকলকেই সাধারণভাবে মেনে চলতে হয়। নিয়ম উলঙ্ঘন করলেই বা ছুটির কারণ দর্শাতে না পারলে বেতনের নির্দিষ্ট টাকা কাটা যায়।

তবে শিক্ষকদের তুলনায় শিক্ষিকারা সরকারি ছুটির ক্ষেত্রে বেশি সুযোগ সুবিধা পেয়ে থাকেন। যেমন মাতৃত্বকালীন ছুটির সময় গর্ভধারণ, সন্তান প্রসব ও সন্তানের লালন-পালনের জন্য প্রায় ২৬ সপ্তাহ বা দীর্ঘ ছয় মাস (১৮০ দিন) ছুটি পেয়ে থাকেন স্কুল শিক্ষিকারা। এছাড়াও সন্তানের শরীর অসুস্থ হলেও অতিরিক্ত ছুটি পেয়ে থাকেন স্কুল শিক্ষিকারা।

এতদিন শিক্ষিকাদের সন্তানের মাধ্যমিক বা এমন কোনও বড়ো পরীক্ষা হলেও মা হিসেবেও ছুটি পেতেন না স্কুল শিক্ষিকারা। ফলত পরীক্ষা হলে পৌঁছে দেওয়ার দায়িত্ব বাড়ির অন্যান্য সদস্যদের হাতে ছাড়তে হতো। আবার শিক্ষিকার স্বামী বা পরীক্ষার্থীর পিতাও পেশায় শিক্ষক হলেও ছুটির অনুমোদন মিলতো না। সম্প্রতি এই সংক্রান্ত নিয়মের বদল ঘটালো পশ্চিমবঙ্গ মধ্য শিক্ষা পর্ষদ।

উল্লেখ্য আগামী ২রা ফেব্রুয়ারী থেকে ২০২৪ সালের মাধ্যমিক পরীক্ষা আরম্ভ হচ্ছে। চলবে ১২ই ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত। পর্ষদ এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে স্কুল শিক্ষিকা অভিভাবিকাদের উদ্দেশ্যে জানিয়েছে, ২০২৪ সাল থেকে মাধ্যমিক পরীক্ষা চলাকালীন শিক্ষিকার সন্তান পরীক্ষার্থী হয়ে থাকলে সংশ্লিষ্ট শিক্ষিকারা সন্তানের দেখভাল বা দায়িত্ব নেওয়ার জন্য স্কুল ছুটি নিতেই পারেন।

আরও পড়ুনঃ- কথা রাখবে সরকার! জানুয়ারি থেকেই গরিব মানুষের অ্যাকাউন্টে টাকা দিতে শুরু করবে কেন্দ্র?

wbbse new rule on west bengal female teachers vacation 1

তবে এই ছুটি পাওয়ার জন্য মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরুর কমপক্ষে তিন সপ্তাহ আগেই শিক্ষিকাদের আবেদনপত্র নির্দিষ্ট স্কুলে জমা করতে হবে। সঙ্গে সন্তানের পরীক্ষার অ্যাডমিট, রুটিন ইত্যাদি সংক্রান্ত নথিও জমা করতে হবে আবেদনপত্রের সহিত, তবেই ছুটি মঞ্জুর হবে। সরকারের এমন সিদ্ধান্তে রাজ্যজুড়ে শিক্ষকদের জন্যও এই সম্পর্কিত ছুটির জন্য দাবি উঠছে শিক্ষকমহলের তরফে।

রাজ্য ও কেন্দ্র সরকারের বিভিন্ন ছুটির বিষয়ে সব ধরনের বিস্তারিত আপডেট সবার আগে পেতে আমাদের নিম্নলিখিত সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে যোগ দিতে পারেন। ধন্যবাদ। তথ্যটি শেয়ার করবেন।

টেলিগ্রাম:- Link

হোয়াটসঅ্যাপ:- Link

Like Facebook Page