Â

এই চারটি ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট থাকলে জানুয়ারি ২০২৪ থেকে লক্ষ্মীর ভান্ডার পাবেন না রাজ্যের মহিলারা।

নতুন বছর থেকে বদলে গেল নিয়ম। ২০২৪ সালের জানুয়ারি থেকে এইসব ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট থাকলে লক্ষ্মীর ভান্ডারের প্রাপ্য টাকা আর পাবেন না রাজ্যের মহিলারা। কোন কোন ব্যাঙ্ক এই তালিকায় রয়েছে বিস্তারিত জেনে নিন আজকের এই প্রতিবেদনে।

শুরু থেকেই লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প নিয়ে একাধিক সমস্যা ও অসুবিধা দেখা যাচ্ছিলো আবেদনকারীদের আবেদন সংক্রান্ত নথিপত্রে। লক্ষ্মীর ভান্ডারে বারে বারে আবেদন করেও কোনও টাকা পাচ্ছেন না বলেও অভিযোগ করেন রাজ্যের মহিলার। এবার নতুন বছর পড়ার সাথে সাথেই গুরুত্বপূর্ণ আপডেট উঠে এলো যে, নিম্নলিখিত সমস্যার কারণে লক্ষ্মীর ভান্ডারে আর টাকা পাবেন না সংশ্লিষ্ট মহিলারা। কেন টাকা পাবেন না জানুন।

পূর্বের বছরগুলোতে একাধিক ছোট ছোট ব্যাঙ্ক বড়ো ব্যাঙ্কের অধীনে একত্রিত হয়েছে। ফলত মার্জ হয়ে যাওয়া ছোট ব্যাঙ্কগুলির IFS কোডের পরিবর্তন হয়েছে। আর যেহেতু ব্যাঙ্কে অর্থ লেনদেনের ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ জিনিস হলো আইএফএস কোড। সেজন্য সরকার টাকা পাঠালেও গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট টাকা ক্রেডিট না হওয়ার মতো সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। তাই এতদিন পুরোনো IFSC দিয়ে অ্যাকাউন্টে টাকা আদান-প্রদান হলেও এখন নতুন পরিবর্তিত IFS Code ব্যবহার করা বাধ্যতামূলক।

নিম্নলিখিত ব্যাঙ্ক গুলোর IFSC সম্প্রতি পরিবর্তিত হয়েছে:-

যেমন- এলাহাবাদ ব্যাংকের IFSC আগে ALLA দিয়ে আরম্ভ হলেও বর্তমানে ইন্ডিয়ান ব্যাঙ্কের অধীনে এই ব্যাঙ্ক একত্রিত হওয়ায় এর আইএফএস কোড এখন IDIB দিয়ে শুরু হচ্ছে। একইরকমভাবে অন্ধ্র ব্যাংক ও করপোরেশন ব্যাংকের আইএফএস কোড পূর্বে যথাক্রমে ANDBCORP দিয়ে শুরু হলেও তা বর্তমানে UBIN দিয়ে শুরু হয়।

এছাড়াও সিন্ডিকেট ব্যাংকের আইএফএস কোড পূর্বে বছরগুলিতে লেখা হত SYNB দিয়ে। পরে কানাড়া ব্যাংকের সঙ্গে এই ব্যাংক মার্জ হয়ে যাওয়ায় এখন তা শুরু হয় CNRB দিয়ে।

আরও পড়ুনঃ- মাসে ৭০ হাজার টাকা। বছরে ২ লাখ। কেন্দ্র সরকারের সবচেয়ে বড়ো স্কলারশিপে ছাত্র ছাত্রীরা আবেদন করুন এইভাবে।

these bank account holder will not get fund in lakshmir bhandar from 2024

নতুন বছরে নতুন নিয়ম অনুযায়ী লক্ষ্মীর ভান্ডারের কড়কড়ে ৫০০; ১,০০০ টাকা নিজের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে পেতে চাইলে যত শীঘ্র সম্ভব উক্ত ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট গ্রকহক মহিলারা আপনার নিকটবর্তী দুয়ারে সরকার ক্যাম্প অথবা, পঞ্চায়েত বা ব্লক অফিসে পরিবর্তিত IFS কোডের নথি অর্থাৎ ব্যাঙ্ক শাখা থেকে নতুন আইএফএস কোডের সিল সই নিয়ে তার জেরক্স কপি নির্দিষ্ট অফিসে জমা করতে হবে। নাহলে লক্ষ্মীর ভান্ডার পাবেন না তারা।

মহিলাদের লক্ষ্মীর ভান্ডার নিয়ে রাজ্য সরকারের যাবতীয় সমস্ত রকম আপডেট তথ্য সবার আগে পেতে আমাদের উপরের সামাজিক মাধ্যম গ্রুপে নির্দ্বিধায় যুক্ত হতে পারেন।

Like Facebook Page