Â

কন্যাশ্রী প্রকল্পে কোন ক্লাসে কত টাকা পাবেন?

রাজ্য সরকার ক্ষমতায় আসার পরই যে জনপ্রিয় ও জনকল্যাণমুখী প্রকল্পগুলির সূচনা করেছেন তার মধ্যে প্রথম সারিতে রয়েছে কন্যাশ্রী প্রকল্প। রাজ্যের মেয়েদের উচ্চশিক্ষার গন্ডি পেরোতে সাহায্য করার পাশাপাশি দেশ ছাড়িয়ে বিদেশেও এখন রোল মডেল বাংলার এই কন্যাশ্রী প্রকল্প। তবে কথা হচ্ছে কন্যাশ্রী প্রকল্পের আওতায় কোন ক্লাসে কত টাকা দেয় হয় বাংলার শিক্ষার্থী ছাত্রীদের।

২০১৩ সালের ৮ই মার্চ নারীশিক্ষার প্রসারে ও বাংলার স্কুলছুট মেয়েদের স্কুলমুখী করে তোলার উদ্দেশ্যে কন্যাশ্রী প্রকল্পের সূচনা করেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই প্রকল্প চালু হওয়ার পর থেকেই দেশে বিদেশে বহু ক্ষেত্রে বঙ্গের এই প্রকল্প বহুলাংশে প্রশংসিত হয়। শুধু তাই নয়। দেশে ও বিদেশে একাধিক ইভেন্টে বহু পুরস্কার জিতেছে এই প্রকল্প। এমনকি নারীশিক্ষার প্রসারে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য রাষ্ট্রপুঞ্জ ও UNICEF এর সম্মাননা পুরস্কার জিতে নিয়েছে বাংলার এই স্বনামধন্য প্রকল্প।

কন্যাশ্রী প্রকল্প চালু করার মূল উদ্দেশ্য হলো নারীশিক্ষার প্রসার ঘটানো। জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সকল যোগ্য শিক্ষার্থী স্কুলছুট ছাত্রীদের স্কুলমুখী করে তোলা। পাশাপাশি বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে বাংলার এই কন্যাশ্রী প্রকল্প। এই প্রকল্পে ছাত্রী পড়ুয়াদের আর্থিক সাহায্যের পাশাপাশি শারিরীক ও মানসিকভাবে সুস্থ সবল সচেতন নারী হয়ে ওঠার জন্য বেশকিছু কিটও প্রদান করে থাকে রাজ্য সরকারের নারী ও শিশুকল্যাণ দপ্তর।

কন্যাশ্রী প্রকল্প কে বয়স ও শ্রেণি অনুযায়ী তিনভাগে ভাগ করা হয়েছে। Kanyashree K1 প্রকল্পে রাজ্যের ১৩ থেকে ১৮ বছর বয়সী অষ্টম শ্রেণী থেকে দ্বাদশ শ্রেণীতে পাঠরত ছাত্রীদের প্রত্যেক মাসে ৭৫০ টাকা করে দিয়ে থাকে রাজ্য সরকার। কন্যাশ্রী K2 প্রকল্পে ছাত্রীদের ১৮ বছর পূর্ণ হলে এককালীন পঁচিশ হাজার টাকা ছাত্রীদের উচ্চশিক্ষার জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয় পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফে। এক্ষেত্রে পড়ুয়াদের স্নাতক কোর্সে নাম এনরোলমেন্ট করাতে হবে।

আরও পড়ুনঃ- শিক্ষকতার জন্য বিশেষ নিয়ম তৈরি করছে সরকার। শিক্ষকদের বাধ্যতামূলকভাবে মানতে হবে এই নিয়ম।

এছাড়া ৪৫ শতাংশ নম্বর পেয়ে স্নাতক পাস শিক্ষার্থী ছাত্রীরা স্নাতকোত্তর ভর্তি হলে প্রথম বর্ষে কন্যাশ্রী কে থ্রি প্রকল্পে কলা ও বাণিজ্য বিভাগের ছাত্রীদের প্রতি মাসে ২ হাজার টাকা এবং বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রীদের প্রত্যেক মাসে ২,৫০০ টাকা করে বৃত্তি প্রদান করে থাকে রাজ্য সরকার। যোগ্য ছাত্রীরা সমগ্র কোর্স চলাকালীন রিন্যুয়াল এর মাধ্যমে পরবর্তী বছরগুলোতে নির্দিষ্ট পরিমাণ বৃত্তি পেতে থাকবেন।

এমন আরও গুরুত্বপূর্ণ খবরের প্রতিনিয়ত সর্বশেষ আপডেট পেতে আমাদের টেলিগ্রাম ও হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ এ ফলো করুন।

Telegram Group:- Link

WhatsApp Group:- Link

Like Facebook Page