Â

প্রত্যেক পরিবার কে নগদ ৬,০০০ টাকা দেবে রাজ্য সরকার। ১৬ ডিসেম্বর থেকে টোকন দেওয়া শুরু।

রেশন কার্ড থাকলেই প্রত্যেক পরিবারকে ৬,০০০ টাকা করে দেবে রাজ্য সরকার। রাজ্য সরকারের তরফে ইতিমধ্যেই এই ঘোষণা করা হয়েছে। ১৬ ডিসেম্বর থেকে সরকারের তরফে অর্থ বিতরণ কর্মসূচি শুরু হয়ে গিয়েছে। এই অর্থ অনুদান ও সাহায্য পেতে হলে প্রতিটি পরিবারের সদস্য কে প্রথমে রাজ্য সরকার প্রদত্ত একটি টোকেন সংগ্রহ করতে হবে যার বিতরণ প্রক্রিয়া চলতি মাসের ষোলো তারিখ থেকে শুরু হয়ে গিয়েছে।

উল্লেখ্য, প্রত্যেক বছর শীত ঋতুতে দক্ষিণ ভারতের বেশ কয়েকটি রাজ্যেই মরশুমি বৃষ্টিপাত হয়। তবে এবার এবছর বৃষ্টির পাশাপাশি ঘুর্ণিঝড় মিগজাউম এর তান্ডব ও ঘটে গিয়েছে। আর এই প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে বিপর্যস্ত ও বিধ্বস্ত এলাকাগুলোতে ত্রাণ সামগ্রী দেওয়া হচ্ছে রাজ্য সরকারের তরফে। পাশাপাশি বন্যার কারণে ক্ষতিগ্রস্ত উপকূলবর্তী প্রত্যেকটি পরিবারকে নগদ ছয় হাজার টাকা দিয়ে সাহায্য করবে রাজ্য সরকার।

বিগত মাসেই মিগজাউম সাইক্লোন আছড়ে পড়েছিল ভারতের মূল ভূখণ্ড তামিল নাড়ুর মাটিতে। প্রাকৃতিক সামুদ্রিক ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে, বৃষ্টি ও বন্যার ফলে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে তামিলনাড়ুর উপকূলবর্তী বেশ কয়েকটি জেলা। সেইসকল জেলাতেই ত্রাণসামগ্রীর পাশাপাশি আর্থিক সহায়তা করতে এগিয়ে এসেছে তামিলনাড়ু সরকার।

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এম কে স্ট্যালিন জানিয়েছেন দুর্যোগের কারণে বিপর্যস্ত প্রতিটি পরিবারকে আর্থিক সাহায্য দেবে রাজ্য সরকার। রাজ্যের অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন তামিলনাড়ুর রাজধানী চেন্নাই সংলগ্ন উপকূলবর্তী মোট চারটি জেলায় ত্রাণ সামগ্রীর সাথে ৬,০০০ টাকা করে প্রত্যেকটি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে আর্থিক সহায়তা করবে স্ট্যালিন সরকার। এর জন্য পরিবারগুলোর রেশন কার্ড থাকতে হবে এবং পরিবার গুলোকে আর্থিক সুবিধা পেতে অবশ্যই রাজ্য সরকারের দেওয়া একটি করে টোকেন সংগ্রহ করতে হবে।

আরও পড়ুনঃ- রাজ্যবাসীর অ্যাকাউন্টে ২০০০-৫০০০ টাকা করে দিচ্ছে রাজ্য সরকার।

ration card holder will get inr 6000 for migavum cyclone 1

বিশেষ মাধ্যম সূত্রে আপডেট, ১৬ই ডিসেম্বর থেকে টোকেন বিতরণ শুরু হয়ে গিয়েছে। এবং আগামী ১০ দিনের মধ্যে অর্থ বিতরণ কর্মসূচি সম্পন্ন করতে উদ্যোগী হয়েছে সংশ্লিষ্ট রাজ্য সরকার। ইতিমধ্যেই সতেরো কোটি আশি লাখ টাকার ত্রাণ সামগ্রী বিলি করেছে তামিল নাড়ু সরকার। যার মধ্যে চার লক্ষ কেজির ওপরে চাল, দশ লাখের বেশি পানীয় জলের বটল, তেরো লক্ষের বেশি বিস্কুটের প্যাকেট, তেইশ হাজার কেজির ওপরে ডাল ও প্রায় তিন লাখের মতো পাউরুটির প্যাকেট ইতিপূর্বেই ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার গুলোর মধ্যে বন্টন ও দান করেছে সরকার।

আরও এমন গুরুত্বপূর্ণ আপডেট সম্পর্কে তথ্য ও খবরাখবর এবং সরাসরি নিয়মিত নোটিফিকেশন পেতে আমাদের সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এ যোগ দিন।

হোয়াটসঅ্যাপ:- Link

টেলিগ্রাম:- Link

Like Facebook Page