Â

আবাস প্লাসে আবেদন করুন এবং পেয়ে যান বাড়ি তৈরির ভর্তুকি ২ লাখ ৬৭ হাজার ২৮০ টাকা।

সম্প্রতি আবাস যোজনায় দুর্নীতির অভিযোগে জেলায় জেলায় বিডিও অফিস, সরকারি দপ্তরের সামনে, বিক্ষোভ করেন বঞ্চিত যোগ্য মানুষেরা। যোগ্যতা না থাকলেও অনেক রাজনৈতিক নেতা ঘনিষ্ঠরা ঘর পেয়েছেন এমন অভিযোগ ওঠে। এদিকে আবাস যোজনায় রাজ্যের প্রাপ্য টাকা না দেওয়ায় কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বারবার সরব হয়েছে রাজ্য সরকার। উল্লেখ্য, আবাস প্লাস যোজনায় পাকা বাড়ি তৈরির জন্য ৬০:৪০ অনুপাতে টাকা দেয় রাজ্য ও কেন্দ্র সরকার। যারা ২০২২-‘২৩ বর্ষে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় নাম নথিভুক্ত করতে পারেননি তাদের চিন্তার কোনো কারণ নেই। তারা ২০২৩-‘২৪ সালে আবেদনের জন্য প্রস্তুত থাকুন।

আবাস প্লাস যোজনা কি ?

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা বা আবাস প্লাসের মাধ্যমে দেশের সমস্ত নিম্ন ও মধ্য আয়সম্পন্ন মানুষকে পাকা বাড়ি প্রদান করছে সরকার। ২০১৫ সালে মোদি সরকার ঘোষণা করে, ২০২২ সালের মধ্যে প্রায় ২ কোটি মানুষ পাকা বাড়ির স্বপ্ন পূরণ করতে পারবেন। তবে সেই লক্ষ্যমাত্রা পূরণ না হওয়ায় ২০২৪ সাল পর্যন্ত সময়সীমা বর্ধিত করা হয়েছে এবং বাড়ি তৈরির সংখ্যা ২.৫ কোটি করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা দুই প্রকার, এক Pradhan Mantri Awas Yojona (Urban) এবং দুই PMAY-Gramin। PMAY-Urban ও PMAY-Gramin এর বৈধতা যথাক্রমে ডিসেম্বর, ২০২৩ ও মার্চ, ২০২৪ পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।

আরও পড়ুন: আধার সেবা কেন্দ্র খুলে আয় করুন ভালো পরিমাণ টাকা।

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার উদ্দেশ্য:-

যেসকল ব্যক্তির/পরিবারগুলির পাকা বাড়ি নেই তাদের ঋণপ্রদানের মাধ্যমে বাড়ি তৈরীর স্বপ্ন পূরণ করা। পাশাপাশি সুবিধাভোগীদের নির্দিষ্ট পরিমাণ ভর্তুকিও দিয়ে থাকে সরকার।

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় কারা আবেদনের যোগ্য (শর্তাবলি):-

• একটি পরিবারের স্বামী, স্ত্রী, পুত্র, কন্যার মধ্যে যেকোনো একজনই আবেদন করতে পারবেন।
• আবেদনকারীর নামে কোনো পাকা বাড়ি থাকা চলবে না।
• আবেদনকারীর নামে ভিটা-জমি থাকতে হবে।
• একটি নির্দিষ্ট আয়ের ব্যক্তি/পরিবার এই প্রকল্পের সুবিধা নিতে পারবেন। নীচে তা উল্লেখ করা হল।

১) Economically Weaker Section (EWS), ৩ লাখ টাকা পর্যন্ত।
২) Low Income Group (LIG), ৩-৬ লাখ টাকা পর্যন্ত।
৩) Middle Income Group (MIG I), ৬-১২ লাখ টাকা পর্যন্ত।
৪) Middle Income Group (MIG II), ১২-১৮ লাখ টাকা পর্যন্ত।

কিভাবে আবেদন করবেন?

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় দুইভাবে আবেদন করতে পারবেন। প্রথমত, অনলাইনে pmaymis.gov.in ওয়েবসাইটে গিয়ে User Name ও Password তৈরী করুন। এরপর ‘Citizen Assessment’ অপশনে গিয়ে Benefit Under Other 3 Components এ যান। এবারে আধার নম্বর লিখুন এবং Check এ ক্লিক করুন। এবারে আপনার সামনে আবেদন পত্রটি খুলে যাবে। সমস্ত তথ্য ভালোভাবে পূরণ করুন। এরপর নীচে দেওয়া Captcha Code টি লিখুন এবং Submit এ ক্লিক করুন।

অথবা, আবাস যোজনার আবেদন পত্র প্রিন্ট করুন। ভালোভাবে সমস্ত তথ্য পূরণ করে প্রয়োজনীয় নথি সহযোগে State Government নির্বাচিত Common Service Centre কিম্বা প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার সুবিধা দেয় এমন ব্যাঙ্কে গিয়ে জমা দিন।

প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস:-

• এই যোজনার সুবিধা নিতে হলে আপনার অবশ্যই আধার কার্ড থাকতে হবে।
• একটি ঘোষণাপত্র যেখানে উল্লেখ করা থাকবে আপনার নামে কোনো পাকা বাড়ি নেই।
• ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ডিটেইলস।
• জব কার্ড নম্বর (যদি থাকে)।
• স্বচ্ছ ভারত মিশন এনরোলমেন্ট নম্বর।

কত টাকা ঋণ পাবেন, ভর্তুকি, ঋণ শোধের মেয়াদ:-

১) EWS ক্যাটেগরির আবেদনকারীকে সর্বোচ্চ ৬ লক্ষ টাকা ঋণ, ২,৬৭,২৮০ টাকা ভর্তুকি দেওয়া হয়।
২) LIG ক্যাটেগরির আবেদনকারীকে সর্বোচ্চ ৬ লক্ষ টাকা ঋণ ও ২,৬৭,২৮০ টাকা ভর্তুকি দেওয়া হয়।
৩) MIG I ক্যাটেগরির আবেদনকারীকে সর্বোচ্চ ৯ লক্ষ টাকা ঋণ, ২,৩৫,০৬৮ টাকা ভর্তুকি দেওয়া হয়।
৪) MIG II ক্যাটেগরির আবেদনকারীকে সর্বোচ্চ ১২ লক্ষ টাকা ঋণ এবং ২,৩০,১৫৬ টাকা ভর্তুকি দেওয়া হয়।
সবক্ষেত্রেই ঋণশোধের সর্বোচ্চ সীমা ২০ বছর।

আবাস যোজনার স্ট্যাটাস কিভাবে চেক করবেন?

pmaymis.gov.in এই ওয়েবসাইটে গিয়ে ‘Citizen Application’ এ ক্লিক করুন। এরপর ‘Check Status’ এ যান। এবারে যথাস্থানে আপনার Application Id ও মোবাইল নম্বর লিখুন। এখন Submit অপশনে ক্লিক করলেই আপনার আবেদনের স্ট্যাটাস স্ক্রিনে দেখতে পাবেন ।

Like Facebook Page