Â

কৃষক বন্ধু প্রকল্পে রবি শস্যের টাকা কবে দেওয়া হবে? উঠে এলো গুরুত্বপূর্ণ আপডেট।

বাংলার কৃষকদের জন্য খুশির আপডেট। চলে এলো শীতের মরশুম। এবার কৃষক বন্ধু প্রকল্পের টাকা দেওয়ারও সময় হয়ে এলো। কবে থেকে কৃষকদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ঢুকবে এই সিজনের রবি শস্যের টাকা? বঙ্গের চাষি ভাইদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে Krishak Bandhu প্রকল্পে শীতকালীন ফসলের টাকা ঢোকা নিয়ে উঠে এলো গুরুত্বপূর্ণ আপডেট।

চাষযোগ্য জমি রয়েছে এমন কৃষিজীবী ব্যক্তিদের কৃষিকাজে আর্থিক সহায়তা প্রদানের জন্য প্রত্যেক বছর ১০,০০০ টাকা দিয়ে থাকে রাজ্য সরকার। বছরে দুই কিস্তিতে সরাসরি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে এই টাকা পেয়ে থাকেন বাংলার কৃষকেরা। চলতি বছর বর্ষাকালে খারিফ শস্যের টাকা ইতিমধ্যেই পেয়ে গিয়েছেন কৃষকেরা। এবার রবি শস্যের টাকা নিয়ে শুরু হয়েছে চর্চা।

বিভিন্ন মাধ্যম সূত্রে যে তথ্য উঠে এসেছে এবং বিগত বছর গুলির অভিজ্ঞতা অনুযায়ী, প্রত্যেক বার ডিসেম্বর মাস থেকেই রবি শস্যের টাকা ছাড়া শুরু করেছে রাজ্য সরকার। তাই কৃষকদের এখনই চিন্তার কোনো কারণ নেই। কেননা বিশেষ সূত্রে আপডেট, ডিসেম্বর মাসের পর থেকেই শীতকালীন মরশুমি ফসলের টাকা পেতে শুরু করবেন চাষীরা। তবে এই নিয়ে এখনি কোনো নির্দিষ্ট তারিখ ঘোষণা করেনি রাজ্য সরকার।

রাজ্য সরকারের নতুন আপডেট অনুযায়ী কৃষক বন্ধু প্রকল্পে নাম নিবন্ধনকারী এই স্কিমের সুবিধা পেতে সকল কৃষককেই সিঙ্গেল ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নথি, আধার ও ভোটার কার্ড সহযোগে কাছাকাছি কৃষি অধিকর্তার অফিসে গিয়ে জমা করতে। আপনি যদি জানতে চান আপনার কৃষক বন্ধুর স্ট্যাটাস কি অবস্থায় আছে তাহলে নিচের পদ্ধতিতে জেনে নিন।

কৃষক বন্ধুর স্ট্যাটাস চেক:-

কৃষক বন্ধু প্রকল্পের স্ট্যাটাস চেক করার জন্য প্রথমে https://krishakbandhu.net/ পোর্টালে গিয়ে Enrolled Farmers Information এ যান। এরপর সিলেক্ট অপশন এ গিয়ে আধার কার্ড, মোবাইল নম্বর অথবা ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নম্বরের মধ্যে যেকোনো একটি বাছুন। এখন যে আইডি টি বাছলেন তার নম্বর টি সঠিক স্থানে বসিয়ে এবং Captcha Code লিখে সার্চ এ ক্লিক করুন। এরপর আপনার স্ট্যাটাস টি যে পেজে উল্লিখিত রয়েছে সেটি ওপেন করুন।

আরও পড়ুনঃ- পরপর ছুটি! ডিসেম্বরে ও নববর্ষের প্রাকমূহুর্তে কতদিন বন্ধ থাকছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সরকারি অফিস?

যদি কৃষক বন্ধু প্রকল্পে আপনার নিবন্ধনকৃত সমস্ত তথ্য ও ডকুমেন্টস ও কারেন্ট আপডেট ঠিক থাকে। তাহলে অনুদানের টাকা সঠিক সময়ে আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে পেয়ে যাবেন। আর যদি, আধার লিঙ্ক না করে থাকেন বা ডকুমেন্টস সংক্রান্ত কোনো সমস্যা থাকলে তাহলেও সেটি উল্লেখ করা থাকবে। তখন সেই সমস্যাটির সমাধান করলে তারপর প্রকল্পের টাকা অ্যাকাউন্টে ঢুকবে।

এমন আরও গুরুত্বপূর্ণ খবরের রোজকার নিত্যনতুন ও খুটিনাটি সর্বশেষ আপডেট পেতে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেলে জয়েন করুন।

হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেল:- Link

Like Facebook Page