Â

এই কাজ না করলে ১০ হাজার টাকা ফাইন হবে সরকারি কর্মীদের। কড়া বার্তা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের!

এই কাজ না করলে দশ হাজার টাকা পর্যন্ত ফাইন হবে রাজ্য সরকারি কর্মীদের। সরকারি কর্মীদের উদ্দেশ্যে কড়া বার্তা দিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। কোন কাজ করলেই বা এই জরিমানা থেকে রেহাই পাবেন এই সংক্রান্ত বিরাট গুরুত্বপূর্ণ আপডেট উঠে এলো নবান্নের তরফে। রাজ্যে বিভিন্ন দপ্তরে সরকারি পরিষেবা প্রদান এবং সরকারি কর্মীদের ভূমিকা নিয়ে বড়ো তাৎপর্যপূর্ণ ঘোষণা করলো রাজ্য সরকার। কি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হলো রাজ্যের ক্যাবিনেট মন্ত্রীসভার বৈঠকে।

বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন সরকারি দপ্তরে কোনো দরকারি বা প্রয়োজনীয় কাজের জন্য গেলে পরিষেবা পেতে হয়রানির স্বীকার হতে হয় সাধারণ মানুষকে অথবা সরকারি কর্মীদের রূঢ় আচরণের সম্মুখীন হতে হয় জনসাধারণ কে। এবার এই সরকারি পরিষেবা প্রদান সংক্রান্ত অভিযোগের ভিত্তিতে সংশ্লিষ্ট অভিযুক্ত কর্মীর বিরুদ্ধে জরিমানার পরিমাণ সর্বোচ্চ ১০,০০০ টাকা পর্যন্ত বৃদ্ধি করলো রাজ্য সরকার।

সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পক্ষে নবান্নের তরফে সরকারি কর্মীদের সতর্ক মূলক বার্তা দিয়ে জনসাধারণ কে জানানো হয়েছে, কোনও সরকারি কর্মী পরিষেবা দিতে অবহেলা করলে কিম্বা সরকারি কর্মীর রোষের মুখে পড়লে সংশ্লিষ্ট কর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে পারেন সাধারণ মানুষ। যদি সাধারণ কোনও অভিযোগে কাজ না হয় তাহলে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ জানাতে পারেন আমজনতা। আপনার কথা শুনবে সরকারি আধিকারিক।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২০১৩ সাল থেকে জন পরিষেবা অধিকার আইন লাগু করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। সেই আইন মোতাবেক যেকোনো সরকারি কর্মী পরিষেবা দিতে গাফিলতি করলে সেই কর্মীর বিরুদ্ধে সাধারণ অভিযোগ করেও যদি কোনও কাজ না হয়, তবে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে যেতে পারেন সাধারণ মানুষ। এক্ষেত্রে জন পরিষেবা অধিকার কমিশনে অধিকার জানাতে পারেন আমজনতা। যদি দেখা যায় উক্ত সরকারি কর্মী পরিষেবা দিতে কাজে খামতি রেখেছেন বা সরকারি কাজে ফাঁকি দিচ্ছেন তবে ওই কর্মীকে দশ হাজার টাকা পর্যন্ত ফাইন করতে পারে সরকার।

আরও পড়ুনঃ- স্কুলে স্কুলে টিচারদের লেটার পাঠাচ্ছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। শিক্ষকতার চাকরি নিয়ে ধোঁয়াশা?

inr 10 thousand fine for govt employees if dont do this 1

এই অভিযোগ জানানোর প্রক্রিয়া একটু দীর্ঘায়িত মনে হলেও কমিশন আপনার অভিযোগ খতিয়ে দেখবে। এবং এর ফলে কোনও সরকারি কর্মচারী ভুল করে থাকলে তার জরিমানা হলে দৃষ্টান্ত স্থাপিত হবে। তাই রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ রা মনে করছেন এই কড়া সিদ্ধান্ত গ্রহণের ফলে পরিষেবা প্রদানে সরকারি কর্মীদের গাফিলতি নিয়ে কড়া বার্তা দিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এই প্রকার অন্যান্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ খবরের খুটিনাটি আপডেট সবার আগে পেতে আমাদের টেলিগ্রাম ও হোয়াটসঅ্যাপ ও নিচের সোশ্যাল মাধ্যমে অনুসরণ করতে পারেন। ধন্যবাদ। শেয়ার করবেন।

ফেসবুক পেজ:- Link

টেলিগ্রাম:- Link

হোয়াটসঅ্যাপ:- Link

ফেসবুক গ্রুপ:- Link

Like Facebook Page