Â

আবার নতুন ছুটির ঘোষণা রাজ্যে। কি কারণে, কয়দিন বন্ধ থাকবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও অফিস?

আবারও নতুন আরেক ছুটির ঘোষণা রাজ্যে। কি কারণবশত এই বিশেষ ছুটি দেওয়া হচ্ছে? কতদিনই বা ছুটি থাকবে? স্কুল, কলেজ, সরকারি অফিস সমস্ত কিছুই বন্ধ থাকবে? চলুন জেনে নেওয়া যাক কি কারণে এই বিশেষ ছুটি ঘোষণা করলো রাজ্য সরকার?

সম্প্রতি রাজ্যে অনুষ্ঠিত হয়েছে তেইশে পঞ্চায়েত নির্বাচন। নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করা হয়ে গিয়েছে। তবে, অনেক জায়গাতেই ভোটের বিশৃঙ্খলার কারণে পুনরায় সেই স্থানগুলিতে ভোট করাতে চাইছে রাজ্য সরকার। আবার এরইমধ্যে পনেরো তম বিধানসভা উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে চলেছে ধূপগুড়ি তে। সেই উপলক্ষ্যে আগামী ৫ই সেপ্টেম্বর, ২০২৩ ধূপগুড়ি তে স্কুল-কলেজ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সমস্ত সরকারী অফিস বন্ধ থাকবে। শুধু স্কুল, কলেজ ও অফিসই নয়। ভোটগ্রহণ পর্ব যাতে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয় তার জন্য ধূপগুড়ি সংলগ্ন দোকানপাট, বাজার, মার্কেট সমস্ত কিছুই বন্ধ রাখা হবে সরকারের তরফে।

রাজ্য সরকার বিবৃতি নোটিশ জারি করে জানিয়েছে, ওইদিন কেবল ধূপগুড়ি ও ধূপগুড়ি সংলগ্ন স্থানের স্কুল, কলেজ ও সরকারি অফিস বন্ধ থাকবে। রাজ্যের অন্যত্র সবকিছু স্বাভাবিকই চলবে। তবে যেসকল ব্যক্তি ধূপগুড়ি তে বসবাস করেন কিন্তু কর্মসূত্রে বাইরে থাকেন, তারা সরকারের নির্দশমতো বাড়িতে ভোট দিতে আসার জন্য কর্মস্থলে ছুটি নিতে পারবেন।

আরও পড়ুনঃ- রাজ্যের নতুন ‘খেলা হবে’ প্রকল্প। কারা আবেদন করতে পারবেন? কি কি সুবিধা পাবেন?

নবান্ন সূত্রে আরও খবর, উপনির্বাচনের আগের দিন অর্থাৎ ৪ই সেপ্টেম্বর, ২০২৩ ও কেবল ধূপগুড়ির স্কুল কলেজ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সরকারি অফিস ছুটি থাকতে পারে। কেননা ভোট গ্রহণ পর্বের আগের দিন ভোটগ্রহণ কেন্দ্রগুলিতে নির্বাচনী প্রস্তুতি সারা হবে। এবং ভোট গণনা ইত্যাদি নির্বাচনি কর্মসূচির জন্য ভোট গ্রহনের পরের দিন অর্থাৎ ৬ই সেপ্টেম্বর, ২০২৩ তারিখেও জরুরি ভিত্তিতে কেবল ধূপগুড়িতেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সরকারি অফিস বন্ধ থাকতে পারে বলে রাজ্য সরকার সূত্রে খবর।

রাজ্য ও কেন্দ্র সরকারের অন্যান্য বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ছুটির খবর সম্বন্ধে সবধরনের আপডেট সবার আগে পেতে আমাদের টেলিগ্রাম ও ফেসবুক এ অনুসরণ করুন।

Telegram Group:- Link

Facebook Page:- Link

Like Facebook Page