Â

নতুন বছরে বাড়তি ছুটি। এই প্রচন্ড শীতে বাচ্চাদের স্কুলে যাওয়া নিষেধ। কবে খুলছে স্কুল?

নতুন বছরে বাড়তি ছুটি পাচ্ছেন স্কুল পড়ুয়ারা। হাঁড় কাঁপানো শীতে বাচ্চাদের স্কুলে যেতে বারণ করছেন বিশেষজ্ঞ ও চিকিৎসকেরা। শীতকালে কতদিন অতিরিক্ত বন্ধ থাকছে বিদ্যালয়। কবে থেকেই আবার খুলে যেতে চলেছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলি বিস্তারিত জানতে নিচের সম্পূর্ণ প্রতিবেদনটি শেষ পর্যন্ত পড়তে অনুরোধ করা হচ্ছে।

নতুন বছরে জানুয়ারিতে উত্তরবঙ্গে হাড় কাঁপানো শীত পড়লেও দক্ষিণবঙ্গে এখনও জাঁকিয়ে শীত পড়েনি। এই ঘটনা রীতিমতো অবাক করেছে সকলকেই। তবে মৌসম ভবন সূত্রে আপডেট, আর কিছুদিনের মধ্যেই রাজ্যের দক্ষিণী জেলাগুলিতেও উত্তুরে হাওয়া ঢুকতে শুরু করবে। চলবে শৈত্যপ্রবাহ। হাড় হিম হয়ে যাওয়া ঠান্ডা পড়তে আর কিছুদিনের অপেক্ষা। রয়েছে বৃষ্টির পূর্বাভাসও।

তবে এরই মধ্যে শোনা গেল প্রচন্ড শীতে স্কুল বন্ধের কথা। যদিও পশ্চিমবঙ্গের স্কুলগুলোতে যথারীতিই পঠন-পাঠন চলছে। এই কনকনে শীতে বন্ধ থাকছে দিল্লীর স্কুলগুলি। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, নতুন বছরে অতিরিক্ত ১০ দিন বন্ধ ছিল কেজি, নার্সারি ও প্রাইমারি স্কুলগুলি। কোনও কোনও জায়গায় শীত সেভাবে না পড়লেও উত্তর ভারতের রাজ্যগুলিতে ভালোই শীত পড়েছে।

তীব্র শৈত্যপ্রবাহ ও উত্তুরে হিমেল হাওয়ার পাশাপাশি রাজধানী দিল্লীর রাজপথে গোটা শীতের মরশুম জুড়েই থাকে ধোঁয়াশা পূর্ণ। এমতাবস্থায় হাড়হিম করা পরিস্থিতিতে দিল্লি সরকারের অধীন, সরকার পোষিত ও সরকার অনুমোদিত বিদ্যালয়গুলি জাঁকালো শীতে বেশ কিছুদিন বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে দিল্লি সরকার। যার সময়সীমা শেষ হয়েছে ১০ই জানুয়ারি, ২০২৪।

আরও পড়ুনঃ- আপনার এলপিজি কানেকশনের সাথে আধার লিঙ্ক আছে কিনা এভাবে জেনে নিন। নাহলে বড়ো সমস্যায় পড়বেন!

heavy winter in india

এরপরেও শীত তীব্রতা না কমায় ১৪ই জানুয়ারি পর্যন্ত বাড়তি ছুটির ঘোষণা করে সরকার। এবার দিল্লি সরকারের আধিকারিক সূত্রে আপডেট। আগামী ১৫ই জানুয়ারি, ২০২৪ থেকে সরকারি ঘোষণা মোতাবেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলি আবারও খুলতে চলেছে। অর্থাৎ প্রচন্ড শীতের দাপটে বন্ধ থাকা কেজি, নার্সারি ও প্রাইমারি স্কুলগুলির দরজা কচিকাঁচাদের জন্য আবারও উন্মুক্ত হয়ে পঠন-পাঠন শুরু হতে চলেছে নির্দিষ্ট দিন থেকে।

এমন আরও গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন খবরের খুটিনাটি ও লেটেস্ট আপডেট সবার আগে পেতে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ ও টেলিগ্রাম গুপে যোগ দিতে পারেন।

টেলিগ্রাম:- Link

হোয়াটসঅ্যাপ:- Link

ফেসবুক:- Link

Like Facebook Page