Â

ভোটের আগে কাগজের পরিবর্তে প্লাস্টিকের নোটের প্রচলন করতে পারে সরকার। জল্পনা তুঙ্গে।

সম্প্রতি ২,০০০ টাকার নোট দেশীয় ও আন্তর্জাতিক বাজার থেকে তুলে নিতে চাইছে ভারত সরকার। সরকারের এই সিদ্ধান্তে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন অনেকেই। সদ্য এই সংক্রান্ত নোটিশ জারি করেছে ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক। সেই মতো গ্রাহকের কাছ থেকে ২০০০ এর নোট জমার প্রক্রিয়াও শুরু করেছে বিভিন্ন রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কগুলি। গত ২৩ শে মার্চ থেকে দু’হাজার টাকার নোটের ডেনোমিনেশন প্রক্রিয়াও শুরু হয়ে গিয়েছে। তবে দুই হাজার নোটের পরিবর্তে কি ১০০০ এর নোট ফিরবে এই নিয়ে আলোচনার মধ্যেই নতুন বিতর্ক প্লাস্টিকের নোট নিয়ে। তবে কি ভোটের পূর্বে প্লাস্টিকের নোট প্রচলন করতে পারে কেন্দ্র? এই নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে।

সম্প্রতি বিভিন্ন মাধ্যম থেকে আপডেট উঠে এসেছে এবং অনেকেই মনে করছেন, ২০০০ এর নোট বাতিলের পরে কি কাগজের নোটের পরিবর্তে প্লাস্টিকের নোটের প্রচলন করতে পারে কেন্দ্র সরকার? বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, এখনো পর্যন্ত প্রায় তেইশটি দেশে প্লাস্টিকের নোটের ব্যবহার চালু করেছে সেই দেশের সরকার। ছয়টি দেশ ইতিমধ্যেই প্লাস্টিকের নোটের প্রচলন শুরু করে দিয়েছে। বিশেষজ্ঞ মহলের ধারণা, পুরোনো কয়েন বন্ধ ও নতুন কয়েন প্রচলন নিয়েও বড়ো ঘোষণা করতে পারে কেন্দ্র সরকার।

আরও পড়ুনঃ- এই সমস্ত ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট থাকলে জুন মাস থেকে লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা পাবেন না মহিলারা!

যদিও বহুকাল আগে রাজা মহারাজদের আমল থেকেই কয়েনের প্রচলন শুরু হয়। ১৮৬১ তে চার্লস ক্যানিং প্রথম সরকারিভাবে ভারতে কাগজের নোটের প্রচলন করেন। আধুনিক ভারতে নোট ছাপানো শুরু সেই সময় থেকেই। কিন্তু অনেক দেশেই এখন কাগজের নোটের পরিবর্তে প্লাস্টিকের নোটের চল রয়েছে। সম্প্রতি ছয় দেশে কাগজের নোটকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। যেমন নিউজিল্যান্ড, ভিয়েতনাম, রোমানিয়া প্রভৃতি। এইসমস্ত দেশে একসময় কাগজের নোটের প্রচলন থাকলেও এখন আর হয় না।

উক্ত দেশগুলি তে কাগজের নোটের ব্যবহার বন্ধ করার মূল কারণ হল- জাল নোট ছাপানোর দূর্নীতি বন্ধ করা। কেননা কাগজের নোট নকল করা সম্ভব হলেও প্লাস্টিকের নোট জাল করা কিন্তু বেশ শক্ত কাজ। এছাড়াও কাগজের নোট জলে ভিজে গেলে নষ্ট হয়ে যেতে পারে কিন্তু জলে ভিজলে প্লাস্টিকের নোটের নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা একেবারেই নগণ্য। এই সমস্ত অসুবিধার কারণে কাগজের নোটের তুলনায় প্লাস্টিকের নোটের ব্যবহার অনেকাংশেই নিরাপদ। তাই কাগজের নোটের পরিবর্তে প্লাস্টিকের নোট বাজারে আসতে পারে বলে জোর জল্পনা আম জনতার মধ্যে।

আরও পড়ুনঃ- তাড়াতাড়ি সারুন এই কাজ। নাহলে আধার কার্ডে গুণতে হবে অতিরিক্ত চার্জ।

দেশ- বিদেশের এমন আরও কারেন্ট আপডেট পেতে আমাদের ওয়েবসাইট টিকে নিয়মিত ফলো করুন। এছাড়াও রোজকার গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হন।

টেলিগ্রাম চ্যানেল:- Link

হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ:- Link

Like Facebook Page