Â

সকল বিদ্যার্থী কে ৩০,০০০ টাকা দিচ্ছে সরকার। আবেদন করুন প্রগতি স্কলারশিপ এ।

শিক্ষার্থীদের জন্য দারুণ সুযোগ। ছাত্রীদের ৩০,০০০ টাকা করে দিচ্ছে সরকার। উচ্চ শিক্ষা সুন্দর ভাবে চালিয়ে যেতে পড়ুয়াদের প্রগতি স্কলারশিপে আবেদন শুরু হয়েছে। এই স্কলারশিপ আবেদনের জন্য কিরকম যোগ্যতা প্রয়োজন, আবেদন প্রক্রিয়া ও প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস সম্পর্কে খুটিনাটি আপডেট জানতে সম্পূর্ণ প্রতিবেদনটি শেষ পর্যন্ত পড়ুন।

যেসকল পড়ুয়া পড়াশোনায় ভালো কিন্তু পরিবারের অর্থনৈতিক অবস্থা সচ্ছল না হওয়ার কারণে তাদের উচ্চ শিক্ষা চালিয়ে যেতে অপারগ তাদের জন্য নিয়মিত সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন স্কলারশিপের সর্বশেষ আপডেট সম্বন্ধে স্টুডেন্ট দেরকে জানিয়ে থাকি আমরা।কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার নারী শিক্ষার প্রগতিতে বিভিন্ন স্কলারশিপ চালু করেছে। এই নিবন্ধে প্রগতি স্কলারশিপ সম্বন্ধে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

প্রগতি স্কলারশিপের আবেদন যোগ্যতা:-

এই স্কলারশিপে আবেদনের জন্য আবেদনকারীর নিম্নলিখিত যোগ্যতা গুলি থাকতে হবে।

১) নবম শ্রেণি থেকে শুরু করে গ্র্যাজুয়েশন কোর্স পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা এই বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন।
২) মেডিক্যাল ও ইঞ্জিনিয়ারিং এর ডিপ্লোমা কোর্স ও আইটিআই পাঠরতরা এই স্কলারশিপে আবেদন জানানোর যোগ্য।
৩) যে কোর্সে বৃত্তির জন্য আবেদন করবেন তার আগের ক্লাসে কমপক্ষে ৬০% নম্বর পেয়ে পাস হতে হবে।
৪) United Breweries Limited গ্রুপে চাকরিরত হলে তাদের সন্তান রা এই স্কলারশিপে আবেদন করতে পারবেন না।
৫) কেবল মহিলা প্রার্থীরাই এই স্কলারশিপে আবেদন করতে পারবেন।
৬) একই পরিবারের সর্বোচ্চ দুইজন শিক্ষার্থী এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন যোগ্য।
৭ ) পরিবারের বার্ষিক ইনকাম পাঁচ লাখ টাকা বা তার কম হতে হবে।

আরও পড়ুনঃ- বাংলার যুবক-যুবতীকে ২ লাখ টাকা করে দিচ্ছে রাজ্য সরকার। আবেদন করুন কর্ম সাথী প্রকল্পে।

কত টাকা বৃত্তি দেওয়া হয়?

প্রগতি স্কলারশিপে কোর্স অনুযায়ী নিম্নলিখিত পরিমাণ বৃত্তি দেওয়া হয়ে থাকে।

১) নবম শ্রেণি, দশম শ্রেণি ও ITI কোর্সে পাঠরত রা প্রগতি স্কলারশিপের অধীনে বাৎসরিক ১০,০০০ টাকা পেয়ে যাবেন।
২) 11th ও 12th এর পড়ুয়ারা বার্ষিক সর্বোচ্চ ১৫ হাজার টাকা বৃত্তি পেয়ে থাকেন।
৩) মেডিক্যাল ও ইঞ্জিনিয়ারিং এর ডিপ্লোমা কোর্সে পাঠরত শিক্ষার্থীরা বছরের সর্বোচ্চ কুড়ি হাজার টাকা পাবেন।
৪) ব্যাচেলর কোর্সে পাঠরত রা বছরে সর্বোচ্চ ৩০,০০০ টাকা পর্যন্ত পাবেন এই স্কলারশিপের অধীনে।

আবেদন প্রক্রিয়া:-

এই স্কলারশিপ এ আবেদনের জন্য National Scholarship Portal এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের হোমপেজে যান। এখন New Registration এ ক্লিক করে Application Id ও Password তৈরি করে নিন। এবার উক্ত ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করুন। প্রগতি স্কলারশিপে আবেদনের জন্য শিক্ষার্থীদের UGC/AICTE Schemes এ গিয়ে আবেদন করতে হবে।

স্কলারশিপে আবেদনের জন্য শর্তাবলি চেকবক্স টিক মার্ক দিয়ে প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস সহযোগে অনলাইন আবেদন পত্রটি ভালোভাবে পূরণ করতে হবে। আপনার প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস নির্দিষ্ট সাইজে স্ক্যান করে আপলোড করবেন। সমস্ত তথ্য ঠিকঠাক থাকলে দরখাস্ত সাবমিট করলেই আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়ে যাবে। সমস্ত ভেরিফিকেশন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে বৃত্তির আবেদন পত্র মঞ্জুর হতে মোটামুটি ১-২ মাস মতো সময় লাগবে। এরপর আবেদনকারীর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে নির্দিষ্ট পরিমাণ বৃত্তির টাকা ক্রেডিট হয়ে যাবে।

কি কি নথি লাগবে?

প্রগতি স্কলারশিপে আবেদনের সময় নিম্নলিখিত নথিগুলো সঙ্গে রাখতে হবে।

১) আধার/ ভোটার কার্ড।
২) পাসপোর্ট মাপের কালার ফটোগ্রাফ।
৩) নতুন কোর্সে ভর্তির রিসিভ কপি।
৪) স্থায়ী বসবাসের/ঠিকানার প্রমাণপত্র।
৫) পরিবারের বার্ষিক আয়ের শংসাপত্র।

আরও পড়ুনঃ- জোড়া সুখবর। জুলাইয়ে ডিএ।ভোটের আগে অষ্টম পে কমিশনে বাড়তে চলেছে সরকারি কর্মীদের বেতন।

গুরুত্বপূর্ণ তারিখ:-

২০২৩-‘২৪ শিক্ষাবর্ষে Pragsti Scholarship এ আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হবে সেপ্টেম্বর-অক্টোবর মাসে। আবেদন চলবে ৩১ ডিসেম্বর, ২০২৩ পর্যন্ত।

কেন্দ্র সরকারের অন্যান্য সমস্ত স্কলারশিপ সম্বন্ধে সর্বশেষ আপডেট পেতে আমাদের WhatsApp Group এ যোগদান করুন।

WhatsApp Group:- Link

Like Facebook Page