একটি ছোট্ট ভুলের কারণে এমাসেও লক্ষ্মীর ভান্ডারে টাকা পাবেন না রাজ্যের মহিলারা!

এখনো আগের বকেয়া লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা হাতে পাননি? আগস্ট মাসের Lakshmir Bhandar প্রকল্পের টাকা কবে পাবেন যা জানালো নবান্ন।

এখনো আগের মাসের বকেয়া টাকাই হাতে পাননি? এই মাসে লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা কবে রাজ্যের মহিলাদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ঢুকবে? আগস্ট মাসে রাজ্য সরকারের জনপ্রিয় ও জনকল্যাণমুখী লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প নিয়ে মস্ত বড়ো আপডেট এইমাত্র উঠে এলো নবান্নের তরফে। নবান্নে এদিন সাংবাদিক বৈঠকে রাজ্যের তরফে খোলসা করা হলো যে, যেসকল মহিলাদের আগের মাসের টাকা বকেয়া আছে, তারা কবে টাকা পাবেন? আগস্ট মাসের টাকাই বা আদতে কবে দেওয়া হবে বিস্তারিত নিচে আলোচনা করা হলো।

এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে নবান্নের তরফে জানানো হয়েছে, আগস্ট মাসে ৪-৫ তারিখ থেকেই লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের টাকা ছাড়ার কাজ শুরু হয়েছে। যেহেতু টাকা ছাড়ার কিছু দিনের মধ্যে টাকা ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ঢোকে।সেইমতো ইতিমধ্যেই (৭-১০ তারিখের মধ্যে) অনেক মহিলাই প্রকল্পের টাকা পেয়ে গিয়েছেন। যারা টাকা পাননি, তাদের জন্য রাজ্য সরকারের তরফে আপডেট, যেহেতু সমস্ত টাকা একেবারে ছাড়া হয় না, ধাপে ধাপে ছাড়া হয়, তাই যাদের সমস্ত ডকুমেন্টস ঠিক থাকা সত্ত্বেও অথবা যারা গত মাসেও লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা পেয়েছেন, তাদের এমাসে এখনো প্রকল্পের টাকা না ঢুকলে তাদের আরো কিছুদিন (৪-৫ দিন) অর্থাৎ আগস্টের ১৪-১৫ তারিখ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে বলা হচ্ছে সরকারের তরফে।

উল্লেখ্য রাজ্যের কিছু মহিলা এমাসে ১,০০০ টাকা পাবেন, কেউ ৫০০ টাকা পাবেন আবার এবং কারো যদি ডকুমেন্টস গোলযোগের কারণে আগের মাসের টাকা বকেয়া থাকে এবং শেষবার দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে ভুল সংশোধন করে সঠিক নথি (তথ্য প্রমাণের কাগজপত্র) জমা করেছেন এবং সবকিছু ঠিকঠাক ভাবে ভেরিফিকেশন এর কাজ সম্পূর্ণ হয়ে গেলে সংশ্লিষ্ট মহিলারা নির্দিষ্ট মাসের বকেয়া টাকা একসাথে পেয়েছেন, পাবেন বা পেতে চলেছেন। এই হিসেবে বকেয়া টাকা অনুযায়ী রাজ্যের বহু মহিলাই একসাথে ২০০০, ৩০০০ বা ৪,০০০ টাকা পর্যন্ত পেয়ে যাবেন এই অগাস্ট মাসে।

আরও পড়ুনঃ- আপনার রেশন কার্ডে সঠিক পরিমাণ খাদ্য সামগ্রী পাচ্ছেন তো? জানুনে আগস্ট কোন কার্ডে কতটা রেশন সামগ্রী দেওয়া হচ্ছে?

পাশাপাশি নবান্ন সূত্রে আরও আপডেট, প্রতিবারের মতো এমাসেও একটি ছোট্ট ভুলের জন্য লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা পাবেন না রাজ্যের মহিলারা। রাজ্য সরকারের নির্দেশিকা অনুযায়ী যারা নথির সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ ও সঠিক ডকুমেন্টস জমা করতে পারেননি এবং লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা পাওয়ার জন্য সরকারের বেঁধে দেওয়া অন্য সমস্ত নিয়ম ও শর্ত মানতে পারেননি, তাদের উক্ত ভুলের কারণে এই মাস এবং ভুল সংশোধন না করলে আগামীতেও টাকা পাবেন না তারা। টাকা পেতে সংশ্লিষ্ট মহিলাদের দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে শর্ত পূরণ ও নথি সংশোধন এর জন্য বলা হচ্ছে।

লক্ষ্মীর ভান্ডারের সুবিধা পেতে রাজ্যের মহিলাদের বাধ্যতামূলকভাবে নিম্নলিখিত শর্তগুলো মানতেই হবে। নচেৎ লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা পাবেন না তারা।

১) লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের সুবিধা পাওয়ার জন্য মহিলাদের পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা সেইসঙ্গে ২৫-৫৯ বছরের মধ্যে বয়স হতে হবে।
২) আবেদনকারী মহিলার নামে/ পরিবারের একটি স্বাস্থ্য সাথী কার্ড দিয়ে পরিবারের একজন মহিলাই এই প্রকল্পের সুবিধা নিতে পারবেন।
৩) লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের টাকা পেতে আবেদনকারীর নিজস্ব সিঙ্গেল ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে।
৪) ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের সহিত আবশ্যিকভাবে আধার লিঙ্ক থাকতে হবে।
৫) বিধবা ভাতা ছাড়া অন্য কোনো সরকারি প্রকল্পের আওতায় সুবিধা পেলে এই প্রকল্পে আবেদন জানাতে পারবেন না।
৬) যেপরিবারের মহিলা লক্ষ্মীর ভান্ডারের সুবিধা পেতে চাইছেন সেই পরিবারের সর্বোচ্চ উপার্জনকারী যাতে আয়কর দিয়ে থাক উক্ত পরিবারের মহিলা এই প্রকল্পের সুবিধা পাওয়ার যোগ্য নন।
৭) মহিলারা পাব্লিক ফান্ড এ অল্পকিছু উপার্জনের চাকরি করে থাকলে আবেদন করতে পারবেন কিন্তু নিম্ম স্তরের সরকারি চাকরি (অঙ্গনওয়ারি, আশাকর্মী, সিভিক ভলেন্টিযার ইত্যাদি) করলেও এই প্রকল্পের সুবিধা নিতে পারবেন না সংশ্লিষ্ট মহিলারা।

লক্ষ্মীর ভান্ডার সম্বন্ধে গুরুত্বপূর্ণ সমস্ত আপডেট সবার আগে পেতে আমাদের ফেসবুক ও টেলিগ্রাম এ অনুসরণ করুন।

টেলিগ্রাম:- Link

ফেসবুক:- Link

Like Facebook Page